Movies

Milestone (2021) | A Netflix Original | Movies Review

The senior driver Khalif once touched the 500,000 km mark – a note in his company – and had a sudden ache in his back. As the Caliph struggles with the disease, the danger of being caught begins when he is asked to train a new driver.

Milestone (2021) | A Netflix Original
ক্লাস ভারতীয় ফিল্ম দেখতে যারা পছন্দ করেন তাদের জন্য।
দিল্লীর একজন পাঞ্জাবী ট্রাক ড্রাইভারের গল্প, যেই চরিত্রে সুভিন্দার ভদ্রলোককে শুরুতে ইয়াশপাল শর্মার মত লাগছিলো। একদম নতুন, কিন্তু কি অভিনয়, চরিত্র ধারণ করা একে বলে!
Court এর পর আরেকজন ভারতীয় নির্মাতা পেলাম, যার পরের ফিল্ম দেখার অপেক্ষায় থাকা যায়। নেটফ্লিক্সের SONI দিয়ে আইভান আয়ারকে চিনেছিলাম, সেটাও ভয়ংকররকমের উপেক্ষিত, দ্বিতীয় ফিল্ম Milestone হয়ত আরও কম দর্শক পাবে, কারণ এটা আরও চুপচাপ, আরও শান্ত ধীর, কিন্তু আরও গভীর। একটাও জোরালো ড্রামাটিক মুহূর্ত নেই।
আইভানের ক্যামেরাও যেন পুরোটা সময় তার প্রেক্ষাপট থেকেই সময়টাকে তুলে ধরছে। লম্বা লম্বা টেক, তবে গিমিকি নেই, একদম স্থানীয় সংলাপ, অপরিচিত সব চরিত্র, তারপরেও আমার কাছে কেন এত এঙ্গেইজিং? কারণঃ কোন স্পুনফিডিং নেই, কোন আবহ সঙ্গিত নেই। আছে ট্রাকের শব্দ, হাইওয়ের কর্কশ বাস্তবতা, ধুসর নীলচে টোনে সিনেমাটোগ্রাফিতে রাতের হাইওয়ে, নিয়ন আলো, দূরপাল্লার গাড়ির হেডলাইট, দিল্লীর ট্রাক স্ট্যান্ডের চালচিত্র।
সবকিছুর মূলে ট্রাক ড্রাইভার গালিবের চরিত্র অধ্যায়ন। সম্প্রতি স্ত্রীকে হারিয়েছে, ৫০০০ কিলোমিটার ট্রাক চালানোর মাইলফলক স্পর্শ করা গর্বের হলেও গালিবের কপালের শতাধিক ভাঁজ বাড়ছে, কারণ চারিদিকে ছাটাই হচ্ছে, বয়স বাড়ছে, নতুনদের জায়গা দিতে পুরানোকে সরিয়ে দেয়া হচ্ছে। অথচ সে এই একটা কাজই জানে, তার একাকীত্ব, অসহায়ত্ব শেয়ার করতে মাঝে মাঝে ফ্ল্যাটে তার বন্ধু আসে। তাদের একটা কথোপকথনে ইদানিংকার মানুষের স্বার্থপরতা, এককেন্দ্রিকতা ও মনোযোগের অভাব উঠে আসে।
তবে আইভানের ন্যারেটিভে কখনোই সেসব মনলোগ, শান্ত আলাপচারিতা একঘেয়ে লাগেনা, কারণ অল্পস্বল্প প্রতিটা সংলাপ অর্থবহ। হিউমার নেই, raw এবং slow devastation। পেছনের গল্প বলতে তথাকথিত ফ্ল্যাশব্যাক বা এক্সপোজিশনের বালাই নেই। অতি সাধারণ দু একটা ছোটখাটো দৃশ্যের মাধ্যমে ধারণা দেয়া, ফলশ্রুতিতে মূল চরিত্র ও তার পেছনের গল্প জানার আগ্রহ আরও বাড়ে।
SONI তে তবু কিছু ড্রামাটিক হার্ডহিটিং মুহূর্ত ছিল, এটাতে তাও নেই। তাই যাদের SONI জমে নি, তারা এটা ভুলেও দেখবেন না।
আমেরিকায় ১০ বছর সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার করে আসা আইভান মূলত সেখানকার ভারতীয় ট্রাকারদের নিয়ে ভেবেছিলেন, পরে নিজের চেনা শহরেই ফেলেন গল্পটা। দেখার সময় ক্রমাগত বাংলাদেশে এমন গল্প নিয়ে কেউ বানায় নি কেন, মনে হয়ে আফসোস হতে থাকে। এই ড্রাইভারদের জীবনে অনেক এক্সাইটিং গল্প থাকার কথা, Milestone এও থ্রিলার উপাদান থাকতে পারতো, পরিচালক ড্রামা বানিয়েছেন, যা আরও শক্তিশালী ও আরও গভীর তাৎপর্যপূর্ণ। এমনকি চলমান সময়ের সাবটেক্সটগুলাও সূক্ষ্মভাবে বসানো।
এধরণের ফিল্মে খুঁত বের করা খুব কঠিন। পেসিং স্লো হলেও কখনোই একঘেয়ে লাগেনি, তথ্যচিত্র মনে হয়নি, যার জন্য সাম্প্রতিক নোম্যাডল্যান্ডও একঘেয়ে লেগেছিল মাঝেমধ্যে। কোর্ট আরেকটু আর্ট, এটায় ঢোকা, কোর্টের চেয়ে তুলনামূলক সহজ। অভিনেতা সুবিন্দার, পরিচালক আইভানের পরবর্তী কাজের অপেক্ষায় রইলাম।
NETFLIX এ ভালো কন্টেন্ট নেই তা না, ওরা মূলধারার জিনিসগুলোকেই প্রচার করে, তাই প্লেলিস্ট ঘাটলে এসব HIDDEN GEM পাওয়া যায়।
আমার গ্রেডিংঃ A
#মুভি #বলিউড #হিন্দি #সিনেমা #রিভিউ #অভীজিবরান #নেটফ্লিক্স

 

সোর্স: দারুণ সব সিনেমার খবর আর লিংক

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
DMCA.com Protection Status